এ তো পৃথিবীর এমন এক অনন্য বৃক্ষ! যিনি নিজে বন

This is a unique tree in the world! A forest itself

আজ আমরা আপনাকে একটি গাছের সম্পর্কে বলতে যাচ্ছি, যা নিজেই একটু অরণ্য অনুভব করে! বলি, ভারতে এই গাছগুলি বর্তমান। ভারতের এক অনন্য বৃক্ষ যা মনে হয় নিজের মধ্যে একটা ঘন অরণ্য। কলকাতার কাছে আচার্য জগদীশ চন্দ্র বসু বোটানিক্যাল গার্ডেনে এই গাছটি বর্তমান। এটি একটি বট গাছ, যা বিশ্বের সর্ববৃহৎ বৃক্ষ। 14500 স্কম (1.5 হেক্টর) এলাকায় এই গাছটি ছড়িয়ে রয়েছে। এবং বিশ্বের বিস্তৃত বৃক্ষ বলে বিবেচিত হয়। গিনেস বুক অফ রেকর্ডে এর নামও রেকর্ড করা হয়েছে। 250 বছর বয়স এই গাছটি এতটাই ছড়িয়ে পড়ে যে দূর থেকে দেখলে এই গাছগুলি বনের মতো দেখতে হবে। এই বানটির 2800 বেশি শিকড় শিকড় গেড়ে বসেছে। এটি গ্রেট বটবৃক্ষ নামে পরিচিত। দেখে মনে হয় বেশ কিছু গাছ, একটা নয়, অন্য রকম।

বট বড় হয়ে যাওয়ায় যাত্রাগুলো জলের খোঁজে মাটির নীচে চলে যায়। পরে এই সব শিকড় গাছের মূলে গিয়ে জল দেয়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এত বছর পরেও তা বিশ্বাস করা কঠিন, বেঁচে আছে। উনিশ শতকে তীব্র ঝড় তার মূল শিকড় উপড়ে ফেলে, যা অবনতি হওয়ার কারণে 1925 সালে কেটে যায়। এখন গাছটি তার মূলে দাঁড়িয়ে আজও বাড়ছে।